বিবিধ

বিদ্যুতের দাম বাড়ানো জনস্বার্থবিরোধী: এনএসবি পার্টি

অনলাইন ডেস্ক:
 দ্রব্যমূল্যের ক্রমাগত উর্ধ্বগতি, মানুষের আয় তেমন বাড়ছে না, বাড়ছে না সুযোগ সুবিধা। নানান অরাজকতায় জনসাধারণ দিশেহারা। এর মধ্যেই ঘনঘন বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে। মধ্যবিত্ত ও নিম্ন মধ্যবিত্তদের কষ্ট বুঝার কেউ নাই। স্বাধীনতার এত বছর পরও জনগণবান্ধব সরকার আমরা পেলাম না। আজ (২০ জানুয়ারি) শুক্রবার ন্যাশনাল সবুজ বাংলা পার্টি-এনএসবি পার্টির চেয়ারম্যান মুহাম্মদ শাহ আলম তাহের এবং মহাসচিব সৈয়দ আহমদ শফী আশরাফী এক যৌথ বিবৃতিতে এসব কথা বলেন। তারা আরো বলেন- সরকার নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহে বার বার ব্যার্থ বিদ্যুৎ বিভাগ। বিভিন্ন প্রজেক্টের নামে হাজার হাজার কোটি টাকা লুটপাট করা হয়েছে।
বিদ্যুৎ বিভাগে চরম দুর্নীতি চলছে। সরকার লুটপাট আর দুর্নীতি বন্ধ না করে আবারও বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি করেছে, যা পরিপূর্ণ জনস্বার্থবিরোধী।‘ তারা বলেন, সরকার একের পর এক পরিবেশবিধ্বংসী ও ব্যয়বহুল বিদ্যুৎ উৎপাদনের দিকে যাচ্ছে। এসব প্রকল্পে সীমাহীন দুর্নীতি ও অনিয়মের কারণে প্রতিনিয়ত বৃদ্ধি পাচ্ছে বিদ্যুতের উৎপাদন খরচ। আর এসবের দায় সাধারণ মানুষের ঘাড়ে চাপানোর জন্য বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি করছে। তারা আরো বলেন – সরকারি বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলোকে সঠিকভাবে চালাতে ও দুর্নীতিমুক্ত করতে পারলে খরচ অনেক কমানো যাবে। এ জন্য বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি না করে উল্টো হ্রাস করা সম্ভব। নেতৃদ্বয় বলেন, আবারও বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি মানে হচ্ছে, প্রায় প্রতিটি জিনিসের মূল্য আরেক দফা বৃদ্ধির কাজ শুরু করা। জিনিসপত্রের দাম বাড়ানোর জন্য যেহেতু কাউকে তাদের জবাব দিতে হয় না, ক্ষমতায় থাকা নিয়ে চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে হয় না; কাজেই মূল্যবৃদ্ধি হবেই। বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির মূল কারণ সরকারের দুর্নীতি, অপচয়, লুটপাট এবং পাচার। জনবান্ধন সিদ্ধান্ত নিতে হবে সরকারকে। জনগণের ভাষা বুঝতে হবে সময় থাকতে। নইলে চরম মূল্য দিতে হবে।
বার্তা প্রেরক: মুহাম্মদ মাসুমবিল্লাহ দফতর সম্পাদক ন্যাশনাল সবুজ বাংলা পার্টি (এনএসবি পার্টি)

এ সম্পর্কিত আরও খবর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আরিও দেখুন
Close
Back to top button