প্রবাসের খবরব্রেকিংস্লাইডার

ভোলায় তৌহিদী জনতার উপর পুলিশী হামলায় কাতারে প্রতিবাদ সভা

 

কাতারে প্রবীণ বাংলাদেশী ইসলামী ব্যক্তিত্ব শায়েখ নূরুল হকের আহ্বানে ভোলায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মহানবী (সাঃ) কে কটুক্তির প্রতিবাদ সমাবেশে তাওহিদী জনতার উপর পুলিশের বর্বর হামলার প্রতিবাদে এক প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। ২৫ অক্টোবর (শুক্রবার) বাদ এশা ফানার মিলনায়তনে মাজলিসুল উলামা আয়োজিত এ সমাবেশে ওলামা-মাশায়েখ, সাংবাদিক, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, সমাজসেবক সহ সর্বস্তরের প্রবাসী ধর্মপ্রাণ মুসল্লীগণ উপস্থিত ছিলেন। বক্তব্য রাখেন ‘মজলিসে ইত্তেহাদুল মুসলেমীন কাতার শাখার সভাপতি মাওলানা ফরিদ আহমাদ, দাওয়াতাল হকের সাবেক সভাপতি মাওলানা লুৎফুর রহমান সাহেব,কাতার বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক শরীফুল হক সাজু, বাংলাদেশ স্কুল ও কলেজের সাবেক ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ একেএম আমিনুল হক, দাওয়াতুল হকের বর্তমান সভাপতি মাওলানা ওবাইদুল্লাহ সাহেব, কাতার ধর্মমন্ত্রণালয়ের ইমাম ও খতিব মাওলানা এমদাদুল্লাহ ও মাওলানা ফখরুল হুদা, মাজলিসে ইত্তেহাদুল মুসলিমীনের সাধারণ সম্পাদক ও মজলিসুল উলামা কাতার’র সদস্য সচিব মাওলানা মুশাহিদুর রাহমান, সহ সভাপতি মাওলানা সিরাজুল ইসলাম ও ইসলামী আন্দোলন কাতার’র সভাপতি মাওলানা নুরুল আনোয়ার। প্রতিবাদ সমাবেশ থেকে সরকারের প্রতি নিম্নলিখিত দাবি পেশ করা হয়:

১. ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) ও আল্লাহকে নিয়ে কটূক্তিকারী হিন্দু ধর্মাবলম্বী বিপ্লব চন্দ্র শুভ’র সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

২. পুলিশের গুলিতে নিহত শহীদদের ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।

৩. পুলিশের গুলিতে আহতদের সুচিকিৎসা নিশ্চিত করতে হবে।

৪. নির্বিচারে গুলি বর্ষণকারী অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে হবে।

৫. গ্রেপ্তারকৃত তৌহিদী জনতার সদস্যদের নিঃশর্ত মুক্তি ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করতে হবে।

৬. আমাদের দেশ একটি শান্তিপূর্ণ দেশ। সে দেশে কোনো অশুভ তৎপরতা দেশের শান্তিকামী তৌহিদী জনতা মেনে নিবে না। উগ্র হিন্দুত্ববাদী, সংগঠন “ইসকন” সাম্প্রদায়িক বিভেদ সৃষ্টি করতে চায়। এই দেশে ইসকনের সকল কার্যক্রম বন্ধ করতে হবে। বিশ্বের মুসলিম উম্মার শান্তি কামনা করে বিশেষ মোনাজাতের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয় ।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close