জাতীয়বিবিধব্রেকিংস্লাইডার

ভোটের দিন বৈধ শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে কোনো বিধি-নিষেধ থাকবে না : ডিএমপি কমিশনার

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচনের দিন বৈধ শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে কোনো বিধি-নিষেধ থাকবে না বলে মন্তব্য করেছেন ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া। শনিবার রাজধানীর শাহবাগ থানায় এক সংবাদ সম্মেলনে ডিএমপি কমিশনার বলেন, ‘ভোটের দিন বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস চলবে না’ বলে গুজব ছড়িয়ে পড়ার মধ্যে তিনি বলেন, ‘ভোটের দিন সব কিছু স্বাভাবিক গতিতেই চলবে। বৈধ শিক্ষার্থীদের জন্য কোনো ধরনের বিধি-নিষেধ থাকবে না।’

তবে ডাকসু নির্বাচন সামনে রেখে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে রোববার সন্ধ্যা ৬টা থেকে ২৪ ঘণ্টার জন্য বহিরাগতদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। এ সম্পর্কে ডিএমপি কমিশনার বলেন,‘রোববার সন্ধ্যা ৬টা থেকে ১১ মার্চ সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং কর্তব্যরতরা ছাড়া অন্য কেউ বিশ্ববিদ্যালয়ে ঢুকতে পারবেন না। নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বিশ্ববিদ্যালয় এলাকার সাত স্পটে তল্লাশি করবে পুলিশ।’

শাহবাগ, নীলক্ষেত, পলাশী, জগন্নাথ হল, শহীদুল্লাহ হল, হাই কোর্ট ও রুমানা ক্রসিংয়ে এই তল্লাশি হবে।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, এসব স্থান দিয়ে শুধু বৈধ পাসধারীরা প্রবেশ করতে পারবেন। যাদের বৈধ পাস থাকবে না তারা ভেতরে প্রবেশ করতে পারবেন না। স্টিকারযুক্ত বৈধ মোটরসাইকেল ও গাড়ি ভেতরে প্রবেশ করতে পারবে।

তিনি জানান, সাংবাদিকদের জন্য ইলেকট্রনিক মিডিয়ার চারজন ও প্রিন্ট মিডিয়ার দুইজন ‘ডিউটি পাস’ সাপেক্ষে ভেতরে প্রবেশ করতে পারবেন।

নির্বাচন ঘিরে নিরাপত্তা নিশ্চিতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে সহায়তা দিতে পুলিশ প্রস্তুত থাকবে জানিয়ে আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ নির্দেশ দিলেই তারা দায়িত্ব পালন করবে। হলে হলে ভোট কেন্দ্র হবে, প্রত্যেকটি ভোটকেন্দ্র সিসিটিভির আওতায় আনা হয়েছে। আর্চওয়েগুলোতে মেটাল ডিটেক্টর থাকবে, এসবে তল্লাশি করে ভেতরে প্রবেশ করানো হবে।’

‘চলবে’ বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস

ভোটের দিন অনাবাসিক শিক্ষার্থীদের ক্যাম্পাসে আনা-নেওয়ার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসগুলো আগের মতোই চলাচল করবে বলে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক গোলাম রাব্বানী।

এদিকে অন্যান্য দিনের মতো শেষ দিনের প্রচারেও উৎসবমুখর ছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। ছুটির দিনে ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ থাকায় হলে হলেই শেষ দিনের প্রচার সেরেছেন প্রার্থীরা।

প্রার্থীর সংখ্যা বিবেচনায় ডাকসু ও হল সংসদের নির্বাচনে ভোট গ্রহণ করা হবে অপটিক্যাল মার্ক রিকগনিশন (ওএমআর) ফর্মে।

মাস্টার দ্যা সূর্যসেন হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক এ এস এম মাকসুদ কামাল বলেন, ‘আমরা ওএমআর ফর্মে ভোট নিচ্ছি। ডাকসু এবং হল সংসদের জন্য দুটি ব্যালটে প্রত্যেককে ভোট দিতে হবে।’

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘শিক্ষার্থীদের আইডি কার্ড দেখিয়ে নিজ নিজ ভোট কেন্দ্রে প্রবেশ করতে হবে। দুপুর ২টার মধ্যে যারা কেন্দ্রে প্রবেশ করবে তাদের সকলেরই ভোট গ্রহণ করা হবে’।

‘ভোটার নিজের আইডি কার্ড দেখিয়ে ব্যালট পেপার সংগ্রহ করে প্রার্থীর নামের ডানপাশে নির্ধারিত ঘরে ক্রস চিহ্ন দিয়ে ভোটাধিকার প্রয়োগ করবে।’

দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য বিশেষ বুথ ও প্রয়োজনীয় সহযোগিতার ব্যবস্থা রাখা হবে বলে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

ভোট কেন্দ্রে মোবাইল ফোনসহ সব ধরনের ইলেট্রনিক ডিভাইস ব্যবহার নিষিদ্ধ করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘নির্বাচনের দিন গণমাধ্যম কর্মীরা চিফ রিটার্নিং অফিসার কর্তৃক ইস্যুকৃত পরিচয়পত্র দেখিয়ে সংশ্লিষ্ট হলের রিটার্নিং অফিসারের অনুমতি নিয়ে ভোট কেন্দ্রের গেস্টরুম বা নির্ধারিত স্থান পর্যন্ত প্রবেশ করতে পারবেন’।

‘ভোট কেন্দ্র থেকে সরাসরি সম্প্রচার করা যাবে না। ভোটগ্রহণ কার্যক্রম বাধাগ্রস্ত হতে পারে এমন কোনো কাজ করা যাবে না।’

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close